বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে ফেসবুক খুবই জনপ্রিয়। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এই মাধ্যমটিতে রীতিমত ব্যবহারকারীরা আসক্ত হয়ে পড়ছে। এ কারণে প্রতারণার ফাঁদ হিসেবে এখন প্রতারক চক্রের লক্ষ্য ফেসবুক।

আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি যদি হ্যাকড হয়ে থাকে, তাহলে বেশ কিছু উপায়ে সেটা পুনরুদ্ধার করতে পারেন।

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে করণীয়:

১. দ্রুত পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন:

  • অন্য যেকোনো ডিভাইস থেকে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন।
  • নতুন পাসওয়ার্ড অন্তত ১২ অক্ষরের হতে হবে এবং তাতে বড় হাতের অক্ষর, ছোট হাতের অক্ষর, সংখ্যা এবং বিশেষ চিহ্ন থাকতে হবে।
  • একই পাসওয়ার্ড একাধিক অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করবেন না।

২. সন্দেহজনক ডিভাইস থেকে লগআউট করুন:

  • ‘সেটিংস অ্যান্ড প্রাইভেসি’ > ‘সিকিউরিটি অ্যান্ড লগইন’ > ‘লগইন হিস্ট্রি’ তে যান।
  • ‘সন্দেহজনক ডিভাইস’ থেকে ‘লগআউট’ করুন।

৩. ইমেইল অ্যাড্রেস যাচাই ও পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন:

  • ‘সেটিংস অ্যান্ড প্রাইভেসি’ > ‘জেনারেল’ > ‘ইমেইল’ এ যান।
  • আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস ‘কনফার্ম’ করুন।
  • ইমেইল অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ডও পরিবর্তন করুন।

৪. ‘হ্যাকড অ্যাকাউন্ট রিপোর্ট’ করুন:

  • https://bn-in.facebook.com/help/203305893040179 পাতায় যান।
  • ‘My account is compromised’ নির্বাচন করুন।
  • ‘Continue’ ক্লিক করুন।
  • পাসওয়ার্ড দিয়ে ‘Secure my account’ ক্লিক করুন।
  • ‘I can’t access this email or phone number’ ক্লিক করুন।
  • ‘Continue’ ক্লিক করুন।
  • নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

৫. বন্ধুদের সতর্ক করুন:

  • আপনার বন্ধুদের জানান যে আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে।
  • তাদের সাথে কোনো অপরিচিত লেনদেন বা লিঙ্ক শেয়ার না করার জন্য বলুন।

৬. অন্যান্য অ্যাকাউন্ট চেক করুন:

  • যদি আপনি একই ইমেইল বা পাসওয়ার্ড অন্যান্য অ্যাকাউন্টের জন্য ব্যবহার করে থাকেন, সেগুলো চেক করুন এবং পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন।

৭. স্থানীয় থানায় জিডি করুন:

  • আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে স্থানীয় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করতে পারেন।

৮. সতর্ক থাকুন:

  • ফেসবুকে ‘ফলো’ বা ‘ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট’ গ্রহণ করার আগে প্রেরকের প্রোফাইল ভালো করে দেখে নিন।
  • ‘ফিশিং লিঙ্ক’ ক্লিক করবেন না।
  • অজানা ব্যক্তিদের কাছ থেকে ‘পাসওয়ার্ড’ বা ‘ওটিপি’ শেয়ার করবেন না।
  • আপনার অ্যাকাউন্টের ‘সিকিউরিটি সেটিংস’ আপডেট রাখুন।

৯. সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিন:

  • যদি আপনি নিজে সমস্যা সমাধান করতে না পারেন, তাহলে একজন সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের সাহায্য নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *